Sahittya

Literature magazine | Bangla & english worldwide

Rhymes

দেশের ছড়া, দশের ছড়া

দেশের ছড়া, দশের ছড়া

সুনীল শর্মাচার্য

দেশের ছড়া, দশের ছড়া

আমার দেশ, তোমার দেশ

শুনতে লাগে মধুর বেশ।

আসল কথা মনের কথা

বলতে গেলে আমরা শেষ!

.

তোমার রাজা, আমার রাজা

ভোটেই বেশ, শাসন দেশ!

রাজার বুলি, ভাষণগুলি

শুনতে শুনতে হচ্ছি শেষ!

.

জোর যার শুনি দেশ তার

টাকা যার শুনি দেশ তার,

আমরা খুঁজি, আমরা বুঝি

দেশটা এখন শুধু হাড়!

.

গলার জোরে কাঁপায় দেশ

আহা, ধন্য রাজা, ধন্য বেশ!

.

প্রজার কথা শোনে না রাজা

সময় তাহার কই?

নিজের আখের লোটে রাজা

দেশটা ওড়ায় খই!

.

অনেক দুঃখ, অনেক কষ্ট

নামায় কথার ঝুরি,

সকাল বিকাল মিথ্যে ব’লে

করছে সকল চুরি!

.

মন গড়া সব কথা বলে

ভাবলে নদীর ঢেউ,

তার খ্যাতি করছে প্রচার

দালাল, চামচা, ফেউ!

.

বিধি-নিষেধ জারি করেন

গভীর হলেই রাত্র,

তার কথাতে আগুন ঝরে

জ্বলছে সবার গাত্র!

.

তিল থেকে তাল করে

ভক্ত ও দালালে,

ঘেউ ঘেউ করে তারা

স্বার্থটা পালালে!

.

চুপচাপ থাকো যদি

দুই পা বাড়ালে,

দেশ লুটে ফাঁকা করে

চোখের আড়ালে!

.

কাকের স্বভাবে তারা

যায় না তাড়ালে,

লুটেপুটে খায় দেখি

নজর হারালে!

.

ধর্ষণ এখন দিনে-রাতে

ধর্ষণ মুখর দেশ,

ধর্ষণ এখন রাজনীতি

বিবেক পুড়েই শেষ!

.

বাদ-প্রতিবাদ যত চলে

শাসক ঘুমায় বেশ,

নিজের দোষ ঢাকতে গিয়ে

ছড়ায় বিভেদ দ্বেষ!

.

উচিত কথা বললে দেয়

দেশদ্রোহী বদনাম,

বিদেশিদের হাত রয়েছে

নজর ঘোরায় রাম!

.

সকালে উঠিয়া আমি

মনে মনে বলি,

সারাদিন নেতাদের

কথা মেনে চলি!

.

আদেশ করেন যাহা

দল-নেতাগণে,

পালন করিব তাহা

প্রতি ক্ষণে ক্ষণে!

.

খুন-ধর্ষণ, ডাকাতি

মনে যাহা চায়,

চাঁদাবাজি, তোলাবাজি

চুরি, ছিনতাই :

.

দাদাগণ আছে সাথে

ভয়-ভীতি নাই,

রামরাজা দেয় হামা

সাথে হনুভাই!

.

দেশের বুকে ঘুরছে দেখো

আজব এক হায়না,

অনেক হলো এবার থামো

এসব আর চাই না!

.

পথে ও ঘাটে খুন-ধর্ষণ

ঢাকতে কতো বায়না,

শাসন চলে দানব যেন

চুপ থাকা তো যায় না!

.

লুটছে নারী, লুটছে দেশ

ধরছে তুলে আয়না,

মুখোশ দেখ পড়ছে খুলে

তবু আঁধার যায় না!

.

সব দলের নেতা ও নেত্রী

সত্যবান ও সরস্বতী,

কথার তোড়ে গড়বে দেশ

আনবে তারা কত গতি!

.

চরকা, পদ্ম, হাতুড়ি-মার্কা

কিংবা ফুল সবুজ ঘাসে,

একই গান গায় যে তারা

একই মঞ্চে কাঁদে হাসে!

.

ঘুষের খেলা, প্রতারণায়

আখের লুটা রাজনীতি,

সংসদীয় এই গণতন্ত্রে

সবার দেখি এক নীতি!

.

ভোটে জিতলে হাজার কথা

গদি জুড়ে বসবে ভাই,

পোশাক শুধু বদল করে

চরিত্রের তফাৎ নাই!

.

ভূত তো এখন সারা দেশে

ভয় দেখানো রাজা,

যখন তখন যাকে তাকে

দেয় যে শুধু সাজা!

.

ভূত এখন নয়কো পুত

ভূত দেশের বাবা,

এদিক-ওদিক হলে দেবে

ঘাড়ে ভীষণ থাবা!

.

ভূত খেয়েছে রাজ্যপাট

ভূত কেড়েছে শস্য মাঠ…

.

বললে কথা ধরবে এঁটে

দেবেই জেলখানা,

আইনকানুন ভূতুড়ে তো

বলতে গেলে মানা!

.

ভূতের রাজা ভাষণ পটু

ছড়ায় দেশে ভীতি,

জাত-বিজাতে বিভেদ টেনে

করছে নষ্ট প্রীতি!

.

ভূত তো দাদা রামের ভক্ত

ঘুরছে আশেপাশে,

ভূত এখন মানুষ মারে

করোনা ভাইরাসে!

…………………

পড়ুন

কবিতা

সুনীল শর্মাচার্যের একগুচ্ছ কবিতা

সুনীল শর্মাচার্যের ক্ষুধাগুচ্ছ

লকডাউনগুচ্ছ : সুনীল শর্মাচার্য

সুনীল শর্মাচার্যের গ্রাম্য স্মৃতি

নিহিত মর্মকথা : সুনীল শর্মাচার্য

প্রয়াণগাথা : সুনীল শর্মাচার্য

সুনীল শর্মাচার্যের কবিতাগুচ্ছ

অন্যভুবনের কবিতা

ঘোড়া : সুনীল শর্মাচার্য

মুহূর্তের কবিতা

অনুভূতি বেজে ওঠে

মুক্তপদ্য

ভারতীয় কোলাজ

ইচিং বিচিং পদ্য : সুনীল শর্মাচার্য

ছড়া

ভারতীয় ছড়া

কালাকালের ছড়া

দেশের ছড়া, দশের ছড়া

গল্প

উকিল ডাকাত : সুনীল শর্মাচার্য

এক সমাজবিরোধী ও টেলিফোনের গল্প : সুনীল শর্মাচার্য

আঁধার বদলায় : সুনীল শর্মাচার্য

মুকুন্দ

প্রবন্ধ

কবির ভাষা, কবিতার ভাষা : সুনীল শর্মাচার্য

ধর্ম নিয়ে : সুনীল শর্মাচার্য

মতামত

ভারতীয় বাঙালি ও ভাষাদিবস

ভারতীয় বাম ও তাদের কিচ্ছা

মুক্তগদ্য

খুচরো কথা চারপাশে : সুনীল শর্মাচার্য

কত রকম সমস্যার মধ্যে থাকি

শক্তি পূজোর চিরাচরিত

ভূতের গল্প

বেগুনে আগুন

পরকীয়া প্রেমের রোমান্স

মুসলমান বাঙালির নামকরণ নিয়ে

এখন লিটল ম্যাগাজিন

যদিও সংকট এখন

খাবারে রঙ

সংস্কার নিয়ে

খেজুর রসের রকমারি

‘দ্য স্যাটানিক ভার্সেস’ পাঠ্যান্তে

মোবাইল সমাচার

ভালো কবিতা, মন্দ কবিতা

ভারতের কৃষিবিল যেন আলাদিনের চেরাগ-এ-জিন

বাঙালিদের বাংলা চর্চা : খণ্ড ভারতে

দাড়ি-গোঁফ নামচা

নস্যি নিয়ে দু-চার কথা

শীত ভাবনা

উশ্চারণ বিভ্রাট

কাঠঠোকরার খোঁজে নাসা

ভারতীয় ঘুষের কেত্তন

পায়রার সংসার

রবীন্দ্রনাথ এখন

কামতাপুরি ভাষা নিয়ে

আত্মসংকট থেকে

মিসেস আইয়ার

ফিরবে না, সে ফিরবে না

২০২১-শের কাছে প্রার্থনা

ভারতে চীনা দ্রব্য বয়কট : বিষয়টা হাল্কা ভাবলেও, সমস্যাটা কঠিন এবং আমরা

রাজনীতি বোঝো, অর্থনীতি বোঝো! বনাম ভারতের যুবসমাজ

কবিতায় ‘আমি’

ভারতে শুধু অমর্ত্য সেন নয়, বাঙালি সংস্কৃতি আক্রান্ত

ধুতি হারালো তার কৌলীন্য

ভারতের CAA NRC নিয়ে দু’চার কথা

পৌষ পার্বণ নিয়ে

প্রেমের ফাঁদ পাতা ভুবনে

শ্রী শ্রী হক কথা

বর্তমান ভারত

ভারতের এবারের বাজেট আসলে অশ্বডিম্ব, না ঘরকা না ঘাটকা, শুধু কর্পোরেট কা

ইন্ডিয়া ইউনাইটেড বনাম সেলিব্রিটিদের শানে-নজুল

ডায়েরির ছেঁড়া পাতা

অহল্যার প্রতি

উদ্ভট মানুষের চিৎপাত চিন্তা

তাহারা অদ্ভুত লোক

পৌর্বাপর্য চিন্তা-ভাবনা

নিহিত কথামালা

অবিভাজ্য আগুন

পাথরের মতো মৌন জিজ্ঞাসা

ভাবনা যত আনমনে

বিবেক পোড়ে অশান্ত অনলে

কালাকালের ডায়েরি

উন্মাদের নীতিকথা

করোনা, ভারতীয় জনগণ ও তার সমস্যা

Share us

সম্পাদক

Jebunnahar Joni

জেবুননাহার জনি। Jebunnahar joni. কবি ও গল্পকার। জন্ম : ১১ জানুয়ারি, নারায়ণগঞ্জ; পৈতৃকনিবাস মাদারীপুর। পিতা : আতাউর রহমান হাওলাদার, মাতা : নুরুননাহার খান। সমাজকল্যাণে বিএ সম্মানসহ এমএ। পেশা : শিক্ষকতা। লেখার বিষয় : কবিতা ও গল্প। প্রকাশিত গ্রন্থ : মেঘলা রাতে চাঁদ (গল্প, ২০০৭), বিরান পথের কাশবন (কবিতা, ২০১৭)। পুরস্কার : গাংচিল সাহিত্য পুরস্কার (২০১১), সমধারা সাহিত্য পুরস্কার (২০১৫)।