Sahittya

Literature magazine | Bangla & english worldwide

আনা বার্নস

আনা বার্নস

প্রথমবারের মতো ম্যান বুকার পুরস্কার উত্তর আয়ারল্যান্ডে

প্রথমবারের মতো ম্যান বুকার পুরস্কার গেল উত্তর আয়ারল্যান্ডে
বিজয়ী হয়েছেন ঔপন্যাসিক আনা বার্নস

প্রথমবারের মতো ‘ম্যান বুকার’ পুরস্কার ২০১৮ জিতেছেন উত্তর আয়ারল্যান্ডের লেখক আনা বার্নস। ‘মিল্কম্যান’ নামে উপন্যাস লিখে তিনি এই অসামান্য পুরস্কার পেলেন। পুরস্কারের অর্থ হিসেবে তিনি পাচ্ছেন ৫০ হাজার পাউন্ড।
স্থানীয় সময় মঙ্গলবার যুক্তরাজ্যের লন্ডনে এবারের ম্যান বুকার পুরস্কারবিজয়ী আইরিশ লেখক আনা বার্নসের নাম ঘোষণা করা হয়। গত শতাব্দীর সত্তরের দশকে নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডে ক্যাথলিক-প্রটেস্ট্যান্ট সহিংসতার বিষয়ে লেখা ‘মিল্কম্যান’ উপন্যাসের জন্য তিনি এ পুরস্কার পেয়েছেন। এদিনই লন্ডনের মধ্যাঞ্চলের গিল্ডহল মিলনায়তনে জাঁকালো অনুষ্ঠানে আনার হাতে এই পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। পুরস্কার হিসেবে তিনি পেয়েছেন ৫০ হাজার পাউন্ড বা ৬৬ হাজার ডলার, যা ৫৬ লাখ টাকারও বেশি। বেলফাস্টে জন্ম নেওয়া ৫৬ বছর বয়সী এই লেখিকা পুরস্কার ঘোষণার পর যেন বিশ্বাসই করতে পারছিলেন না। সে কথাই পুরস্কারগ্রহণ অনুষ্ঠানে বলছিলেন তিনি, নাম ঘোষণায় আমি পুরোপুরি আকাশ থেকে পড়ছিলাম যেন। শেষ পর্যন্ত এ পুরস্কার পেয়ে আমি অভিভূত। তবে ২০০১ সালে প্রথম উপন্যাস ‘নো বোনস’ প্রকাশের পর আর্থিকভাবে চরম দুর্দশার মধ্যে পড়তে হয় আনাকে। এখন এই পুরস্কারের টাকা দিয়ে তিনি নিজের ঋণশোধ করবেন বলেও জানান। ক্যাথলিক-প্রটেস্ট্যান্ট সহিংসতার সময় নারী, পুরুষ, ক্ষমতা ও এসবের অন্তর্গত দ্বন্দ্বসহ বিভিন্ন বিষয়ে লেখা ‘মিল্কম্যান’ প্রসঙ্গে আনা বলেন, আমি উপনস্যাস লিখতে বসে চরিত্রগুলোর জন্য অপেক্ষা করছিলাম, যতক্ষণ না তারা জীবন্ত হয়ে ওঠে। তারা জীবন্ত হওয়া ছাড়া আমি আসলে লিখতেও পারি না।
অন্য আলোচকেরা লিখেছেন, মিল্কম্যান উপন্যাসে প্রভাবশালী এক ব্যক্তির যৌন হেনস্তার শিকার এক তরুণীর জীবনসংগ্রাম চিত্রায়িত হয়েছে। গবেষণামূলক মিল্কম্যান আনা বার্নসের তৃতীয় উপন্যাস। বুকারের বিচারকদের প্রধান কোয়ামি অ্যান্থনি অ্যাপিহার ভাষ্যমতে, অজ্ঞাতপরিচয় ১৮ বছর বয়সী তরুণীর বর্ণনায় বার্নসের তৃতীয় উপন্যাস রচিত হয়েছে। যে তরুণী মিডিল সিস্টার বা মেজো বোন হিসেবে পরিচিত। সেই তরুণী আধাসামরিক বাহিনীর এক বয়স্ক ব্যক্তির শিকারে পরিণত হন। দার্শনিক কোয়ামি অ্যান্থনি অ্যাপিহা বলেন, আমদের কেউই এর আগে এই ধরনের লেখা পড়েননি। সম্পন্ন স্বতন্ত্র ঢঙে মোহনীয় ও বিস্ময়কর গদ্য লিখে প্রচলিত ধারাকে চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দিয়েছেন আনা বার্নস। অ্যান্থনি অ্যাপিহা বলেন, এটি নিষ্ঠুরতার গল্প, যেখানে তীব্র হাস্যরসের সঙ্গে যৌন আক্রমণ ও প্রতিরোধের চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। মিল্কম্যান-এর মতো প্রতারণাপূর্ণ নিপীড়নের ঘটনা প্রত্যেকের জীবনেই ঘটতে পারে।
আনা বার্নস উত্তর আয়ারল্যান্ডের রাজধানী বেলফেস্টে ১৯৬২ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর রচিত অন্য দুটি উপন্যাস : ‘নো বোনস’ (২০০১) ও ‘লিটিল কনস্ট্রাকশনস’ (২০০৭)।
উল্লেখ্য, যুক্তরাজ্য প্রতি বছর ইংরেজি ভাষায় লেখা সেরা মৌলিক উপন্যাস সাহিত্যে ম্যান বুকার পুরস্কার দিয়ে থাকে। শুরু ১৯৬৯ সাল থেকে। তখন ব্রিটিশ, আইরিশ ও কমনওয়েলথভুক্ত দেশের লেখকদের এ পুরস্কার দেওয়া হতো। তবে ২০১৪ সালে এটি বিশ্বের ইংরেজিভাষী সব লেখকদের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়। গত বছর নিজের প্রথম উপন্যাস ‘লিংকন ইন দ্য বার্ডো’র জন্য বিশ্বসাহিত্যের অন্যতম মর্যাদাসম্পন্ন পুরস্কারটি পেয়েছিলেন আমেরিকান সাহিত্যিক জর্জ সান্ডার্স। বইটিতে ছেলের কবরের পাশে যুক্তরাষ্ট্রের ষোড়শ প্রেসিডেন্ট আব্রাহাম লিংকনের একটি রাতের শোকের চিত্রায়ন করেন সান্ডার্স।
তথ্যসূত্র : দ্য গার্ডিয়ান, প্রথম আলো ও বাংলানিউজ২৪ : ১৭ অক্টোবর ২০১৮

Share us

সম্পাদক

Jebunnahar Joni

জেবুননাহার জনি। Jebunnahar joni. কবি ও গল্পকার। জন্ম : ১১ জানুয়ারি, নারায়ণগঞ্জ; পৈতৃকনিবাস মাদারীপুর। পিতা : আতাউর রহমান হাওলাদার, মাতা : নুরুননাহার খান। সমাজকল্যাণে বিএ সম্মানসহ এমএ। পেশা : শিক্ষকতা। লেখার বিষয় : কবিতা ও গল্প। প্রকাশিত গ্রন্থ : মেঘলা রাতে চাঁদ (গল্প, ২০০৭), বিরান পথের কাশবন (কবিতা, ২০১৭)। পুরস্কার : গাংচিল সাহিত্য পুরস্কার (২০১১), সমধারা সাহিত্য পুরস্কার (২০১৫)।